সংস্থা গঠনের ইতিহাস


শ্রীমতী ইন্দ্রাণী বাসু ‘এডুকেশান’ বিষয়ের গ্র্যাজুয়েট এবং লন্ডন ইউনিভারসিটি থেকে ‘বি এড্’ করেছেন। ভারতবর্ষে একটি মূলধারার স্কুলে চাকরি করাকালীন তাঁর দুই ছেলের অটিজিম্ আছে বলে জানা যায়। ছেলেদের অটিজিম্ নিণর্য়ের পর তিনি ‘স্পেশাল এডুকেটার’-য়ের (বিশেষ ভাবে অটিজিম্ বিষয়ক) শিক্ষা নেন।

কলকাতাতে তিনি ‘অটিজিম্ সোসাইটি ওয়েস্ট বেঙ্গল’-য়ের প্রতিষ্টা করেন। এই সংস্থাটিতে “দীক্ষণ” নামে একটি স্কুল খোলা হয়। এখানে শিক্ষাদান এবং পরিচালনার ক্ষেত্রে ‘ভাবার্ল বিহেভিয়ার অ্যানালিসিস্’ ও ‘স্ট্রাক্চার’ – এই বিশেষ শিক্ষা পদ্ধতি গুলি ব্যবহার করা হয়। ‘অ্যাস্পারগার্ সিনড্রোম্’-য়ের সম্বন্ধে তাঁর বিশেষ আগ্রহ আছে এবং এই বিষয়টি তিনি বিশেষ ভাবে বোঝেন – কারণ তাঁর বড় ছেলের “অ্যাস্পারগার্ সিনড্রোম্” আছে।

ইন্দ্রাণী আরও অনেকগুলি সংস্থার সঙ্গে বিশেষ সহায়ক হিসাবে কাজ করেন :

  • অ্যাক্শান ফর্ অটিজিম্’ (দিল্লি), ‘ইন্ডিয়ান ইন্স্টিটিউট্ অফ্ সেরিব্রাল্ পল্সি’ (কলকাতা) ইত্যাদি।
  • কলকাতা ও কলকাতার বাইরে, অন্যান্য সংস্থা আয়োযিত কর্মশালার বক্তা হিসাবে তিনি নিমন্ত্রিত হন।

২০০৯ সালে ‘হার্টস্প্রিং’ (ক্যানসাস – ইউ এস এ) থেকে তিনি ‘ক্রিয়েটিভ্ অ্যান্ড ইনোভেশান্ ইন স্পেশাল এডুকেশান্’ বিষয়ে পুরস্কার পেয়েছেন।

Copyright ©2018 Autism Society West Bengal : All Rights Reserved
Site Designed and Developed by Tuli E Services